Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

* বর্হিবিভাগে আগত রোগী= প্রথমে অভ্যর্থনা কক্ষের পাশে অবস্থিত টিকেট কাউন্টার হতে সরকারী ফি হিসেবে ৫ (পাঁচ) টাকা জমা দিয়ে টিকেট সংগ্রহ পূর্বক নিজ নিজ প্রয়োজনীয় চিকিৎসকের নিকট হতে চিকিৎসা সেবা গ্রহন করতে পারবেন। উল্লেখ্য যে, পুরুষ ও মহিলা রোগীদের জন্য আলাদা টিকেট কাউন্টার আছে।

 

* জরুরী বিভাগ = শুধুমাত্র জরুরী ক্ষেত্রে আহত রোগীদের ২৪ ঘন্টা সেবা প্রদান করা হয়। তবে, বর্হিবিভাগ বন্ধ চলাকালীন সব সময় জরুরী বিভাগে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। এবং প্রয়োজনে ভর্তি করা হয়।

 

* জলাতঙ্ক ভ্যাকসিন কর্ণার = হাসপাতালের নিচ তলায় প্রবেশ মুখে জলাতঙ্ক ভ্যাকসিন কর্ণার অবস্থিত। উক্ত বিভাগে কুকুর সহ অন্যান্য বন্য প্রাণীর কামড়ে আহত রোগীদের ক্যাটাগরী ভিত্তিক জলাতঙ্ক ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়। সরকারী ভ্যাকসিন সরবরাহ থাকলে কোন রকম ফি ছাড়াই বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেয়া হয়। তবে কোন সরবরাহ না থাকিলে রোগীদের নিজ খরচে ভ্যাকসিন ক্রয় করে এনে ভ্যাকসিন গ্রহন করতে হয়।

 

* মহিলা রোগীদের ভায়া পরীক্ষা = সরকারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক সকল মহিলা রোগীদের ভায়া পরীক্ষা (জরায়ু মুখের ক্যান্সার সনাক্ত করণ) একদম বিনামূল্যে করা হয় এবং প্রয়োজনীয় উপদেশ প্রদান করা হয়। একই সাথে স্তন ক্যানসার বিষয়ে প্রাথমিক পরীক্ষার ব্যবস্থা আছে। উক্ত পরীক্ষা প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দ্বারা সম্পন্ন করা হয়। এই পরীক্ষা সকল প্রাপ্ত বয়স্ক মহিলাদের নির্দিষ্ট সময় পর পর করা উচিৎ। তাই সব শ্রেণীর মহিলাগণ এই সেবা গ্রহন করতে পারেন এবং অন্য সকলকে প্রেরনা দিতে পারেন।

 

* গর্ভবতী মহিলাদের এ.এন.সি সেবা = প্রত্যেক গর্ভবতী মহিলাদের প্রসবের পূর্বে কমপক্ষে ৪ (চার) বার চেক আপ করা বাধ্যতামূলক। সদর হাসপাতাল লালমনিরহাট-এ উক্ত এ.এন.সি সেবা প্রদানের জন্য একটি আলাদা কর্ণার স্থাপন করা হয়েছে। যা অফিস চলাকালীন সময় খোলা থাকে। এবং এই কর্ণারের অভ্যন্তরে মায়েরা তাদের সন্তানদের অতি গোপনীয়তা বজায় রেখে বুকের দুধ খাওয়াতে পারবেন তার জন্য ব্রেষ্ট ফিডিং কর্ণার চালু আছে।

 

* আই.এম.সি.আই কর্ণার = ০-৫ বছরের শিশুদের জন্য পুষ্টি কার্যক্রম তথা আই.এম.সি.আই কর্ণার চালু আছে। উক্ত বিভাগে আগত রোগীদের পুষ্টিকর খাবার পরিবেশনের জন্য প্রয়োজনীয় উপদেশ প্রদান করা হয়।

 

* ভর্তিকৃত রোগীদের সেবা = জরুরী বিভাগ হতে বিভিন্ন ওয়ার্ডে ভর্তিকৃত রোগীদের সার্বক্ষনিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। সেখানে দক্ষ নার্সগণ নিবিড় পরিচর্যার মাধ্যমে রোগীদের সেব দিয়ে থাকেন।

 

* অপারেশন ব্যবস্থা  = জরুরী প্রয়োজনে অপারেশন করা হয়। জটিল প্রসবের ক্ষেত্রে সিজারীয়ান সেকশন চালু অাছে। যা দক্ষ সার্জারী চিকিৎসকগণ করে থাকেন।

 

* এ্যাম্বুলেন্স ব্যবস্থা = জরুরূ প্রয়োজনে রেফার্ডকৃত রোগীদের অন্যত্র মেডিকেল কলেজ বা চিকিৎসা কেন্দ্রে পরিবহনের জন্য এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস প্রদান করা হয়।

 

* কেবিন ব্যবস্থা = রোগীদের জন্য আলাদা কেবিন ব্যবস্থা আছে। রোগীরা চাইলে সেই ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারেন তবে এক্ষেত্রে সরকারী ফি প্রদান করতে হবে।

 

নবজাতকদের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র = সদ্য জন্ম নেয়া কিন্তু অসুস্থ নবজাতকদের জন্য নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র চালু আছে। যেখানে সার্বক্ষনিক দেখাশুনা ও চিকিৎসা প্রদান করা হয়।